How to get google adsense approval | এডসেন্সের অনুমোদন পাওয়ার সহজ trick

অনলাইন ইনকাম আর সব থেকে সহজ মাধ্যম হলো Google Adsense .গুগল এডসেন্স এর সাহায্যে Bloging এবং YouTube চ্যানেল থেকে খুব সহজে USD ডলার ইনকাম করা যায়। ইন্টারনেট যত গুলো Ads Network রয়েছে তাদের মধ্যে সবথেকে বেস্ট হচ্ছে Google Adsense . এডসেন্সের CPC এবং CRT রেট সবচেয়ে বেশি। তাই এডসেন্স এর প্রতি সকলের চাহিদা বেশি। কিন্তু Google Adsense এ approval পাওয়া এতো সহজ বেপার নয়। বহু ব্লগার এডসেন্স approval না পেয়ে নিরাস হয়ে ব্লগিং ছেড়ে দিচ্ছে। কারণ তাদের কাছে কীভাবে এডসেন্স approval নিতে হয়? কি কি নিয়ম ও নীতি follow করতে হয়? এই সব বিষয়ে সঠিক ধারণা নেই সেই কারণে Adsense approval নিতে পারে না।

adsense approve
Adsense approve

আজকের এই আর্টিকেল আমি আপনাকে শেখাবো কিভাবে আপনি সহজ ভাবে google adsense approval . আমি যে ভাবে আমার একটি blogspot সাইটে এডসেন্স approval নিয়েছি সেই knowledge টুক আপনার সঙ্গে শেয়ার করবো যাতে আপনিও আপনার ব্লগ (website)-কে Monetize করে তা থেকে Revenue রেনেরাট করতে পারেন। তাই আপনি সম্পর্ণ আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়বেন।

মূল বিষয়ে যাবার আগে আজ কী কী বিষয় নিয়ে আলোচনা হবে সেটার একটু সংক্ষিপ্ত ধারণা দিয়ে রাখি—

  1. Adsense apply এর পূর্বে আপনার কী কী করণীয় ?
  2. এডসেন্স এর কী কী নীতি মেনে চলতে হবে ?
  3. কীভাবে YouTube চ্যানেল Monetize করতে হয় ?

আরও পড়ুন:

** Google Adsense কী এবং কিভাবে adsense থেকে ইনকাম করা যায় ?

** কী কী ভাবে অনলাইন থেকে ঘরে বসে ইনকাম করা যায় ?

  • Adsense apply এর পূর্বে আপনার কী কী করণীয় (What to do before applying Adsense):

এডসেন্সে জন্য আপনার সাইট apply এর পূর্বে যে যে বিষয় গুলির উপর লক্ষ রাখতে হবে সেই বিষয় গুলো নিম্নে বর্ণনা করা হলো-

  1. প্রথমে আপনাকে আপনার ব্লগটিকে একটি userfendly theme দিয়ে কাস্টোমাইজ করতে হবে, যাতে আপনার ব্লগটি দেখতে সুন্দর লাগে।
  2. পারলে একটি কাস্টম Domin (.Com, .in, .info, .org, .co.in) কিনে (buy) করে নেবে, ফলে আপনার সাইট অনেকটা প্রফেশনাল লাগবে। Domin কেনার জন্য Hostinger ব্যবহার করতে পারেন। আপনি যদি blogspot.com Domin use করেন তাহলে কোনো রকম সমস্যা হবে না। আমি আমার প্রথম ব্লগটি blogspot.com দ্বারা এডসেন্স approve নিয়ে ছিলাম।
  3. আপনার সাইট-এ কিছু page অবশ্যই থাকতে হবে সেগুলো হলো- Contact us, About us, Privicy policy . এই page গুলো ছাড়া কখনো আপনার সাইট adsense পাবে না। অনলাইনে অনেক সাইট পেয়ে যাবে যেখানে Page generat করা হয়ে থাকে।
  4. আপনার সাইট এমন কোনো কনটেন্ট লিখবে না যা google এডসেন্স নীতির বিরোধী।
  5. আপনার সাইটে যখন 30 টি মতো unick আর্টিকেল পোস্ট করবে তার পরে এডসেন্স আর জন্য এপলাই করবেন। লক্ষ রাখবে যেনো আর্টিকেল গুলো তে মিনিমাম (minimum) 7,00 টি word থাকে।
  6. আর্টিকেল এবং images অন্য কোথা থেকে কপি পেস্ট করবেন না কখনো।
  7. আপনার সাইট টিকে Google search console এ index করবেন।
  8. সাইট টিকে google analytics দ্বারা কানেক্ট করে নেবেন।
  • এডসেন্স এর কী কী নীতি মেনে চলতে হবে (What are the key principles of AdSense):

Google adsense কিছু নীতি (tram and conditions) রয়েছে যেগুলো আপনি যদি মেনে না চলে তাহলে আপনার সাইট approve পাবে না, যদি approve পায়ে থাকেন তার পরে এই নীতি গুলো না মানে তাহলে পানের adsense চিরদিনের জন্য বন্ধ (disable) হয়ে যাবে। আপনার সকল মেহনত জলে পরে যাবে। তাই আপনাকে অবশ্যই এডসেন্সের নীতি গুলো মানে চলতে হবে। চলুন এবার জেনেনিই গুগল এর কী কী নীতি রয়েছে-

  1. Adsense এ একাউন্ট খোলার জন্য আপনার বয়স (age)18 বছর হয়ে হবে, তবেই আপনি যোগ্য হবেন। আপনার বয়স যদি 18 বছর না হয়ে থাকে তাহলে আপনি আপনার পরিবারের যেকোনো সদস্যের নাম দিয়ে একাউন্ট খুলতে পারেন।
  2. এডসেন্স বিভিন্ন রকমের সমাজবিরোধী (18+) ও দেশদ্রোহী কনটেন্ট এডসেন্সের নীতির খিলাপ।
  3. আপনার সাইট এডসেন্স approve হওয়ার পরে আপনি আপনার এডসেন্স একাউন্ট-এ ডলার বাড়ানোর জন্য নিজে বা কাউকে দিয়ে ম্যানুয়াল (tool, robot, সফটওয়্যার দ্বারা) ভাবে ads এ ক্লিক করেন তাহলে আপনার একাউন্ট disable হয়ে যেতে পারে। মনে রাখবেন নিজের সাইটে নিজে কখনো ক্লিক করবেন না।
  4. ভিসিটরদের অযথা বার বার redirect করে বিরক্ত করবে না। এতে আপনার এডসেন্সের উপর প্রভাব পড়তে পারে।
  5. ভিসিটরকে নিজের ইন্টারেস্ট অনুযায়ী ads (বিজ্ঞাপনে) ক্লিক করেল কোনো রকম অসুবিধা নেই।

এডসেন্স এর বিজ্ঞাপন নীতি মাঝে মাঝে update হতে পারে।

  • কীভাবে YouTube চ্যানেল Monetize করতে হয় (How to Monetize a YouTube Channel):

Youtube চ্যানেল monitize করার ক্ষেত্রে Youtube এর তরফ থেকে দুটি শর্ত রয়েছে সেই শর্ত গুলো পূরণ করলে আপনি Youtube চ্যানেলের জন্য এডসেন্স এপলাই করতে পারবেন। শর্ত দুটি হলো-

  1. আপনার Youtube চ্যানেলে 1k (1,000) Subscriber থাকতে হবে।
  2. আপনার চ্যানেলের মোট 4,000 ঘণ্টা Watch time থাকতে হবে অর্থাৎ আপনার ভিডিও ইউটুবে 4,000 ঘণ্টা চলতে হবে।

আসা করছি আপনি বুঝতে পড়েছে কী কী যোগ্যতা থাকতে তবে এডসেন্সের জন্য apply করে খুব সহজে approval নিতে পারবেন। এই সমন্ধে কোনো রকম সমস্যা থাকলে Comment করে অবশ্যই জানাবেন।

5 thoughts on “How to get google adsense approval | এডসেন্সের অনুমোদন পাওয়ার সহজ trick”

  1. Hooligan Media দিয়ে আমার চ্যানেল মনিটাইজেশন করেছি। অনেক সহজ। পেমেন্ট ও ভালো।

    Reply
    • Dipujhen, Comment করার জন্য ধন্যবাদ।
      আপনার কি Blog না Youtube চ্যানেল।
      Hooligain media-তে minimum কত পেটমেন্ট নেওয়া যায়?
      Hooligan media সমন্ধে একটু বিস্তারিত জানাবেন।

      Reply
  2. সর্বনিম্নে আপনি ১০০$ ক্যাশ আউট করতে পারবেন। আমি আমার নতুন ওয়েবসাইট টা হোলিগান মিডিয়া দিয়ে মনিটাইজ করিয়াছি। CPM খুবই ভালো। আমি ১২$ করে পাচ্ছি TIER ১ এ ইন্ডাস্ট্রিয়াল অ্যাড এর জন্য। ট্রাই করে দেখেন। ভালো ফল পাবেন।

    Reply

Leave a Comment