কীভাবে প্রতি সপ্তাহে (week) ক্রিপ্টোকারেন্সী থেকে ইনকাম করবেন । Crypto Currency

অর্থ এমন একটি বস্তু যেটার চাহিদা ছোট বড়ো সকলের হয়ে থাকে নিজের কিছু দৈনন্দিন চাহিদা পূরণ করার জন্য। কিন্তু এই অর্থ যদি নিজের কাছে না থাকে কাছে তাহলে দৈনন্দিন চাহিদা গুলি সব অসম্পর্ণ থেকে যায়। আমিও আপনার মতো একজন ব্যক্তি আমার দৈনন্দিন হাত খরচের জন্য টাকার প্রয়োজন কিন্তু আমি কখনো নিজের হাত খরচের টাকা বাবা মায়ের কাছে থেকে নিয়ে না। এখন তো আর সেই বাচ্চা হয়ে নাই যে বাবার কাছে গিয়ে বলবো- ‘বাবা কিছু টাকা দাও’ মুখে বলবো বলুন যথেষ্ট বয়স হয়েছে। তাই যেকোন আমি নিজের হাত খরচের টাকা অনলাইনের মাধ্যমে প্রতি মাসে ইনকাম করে ফেলি। আমি চাই আমার মতো আপনিও আপনার হাত খরচের টাকা নিজে ইনকাম করুন যাতে আপনাকে আর আপনার বাবা মায়ের কাছে টাকার জন্য হাত পাততে না হয়। আমার একটি লক্ষ নিজে ইনকাম করবো পাশাপাশি আপনাদের ইনকাম করার সঠিক রাস্তা গুলি দেখাবো। আমি কোনো কথা বাতাসে বলি না, আগে নিজে প্রয়োগ করি তার পরে আপনাদের বলি। আজ আমি আপনাদের ক্রিপ্টোকারেন্সী থেকে কীভাবে ইনকাম করতে হয় (how to make income from cryptocurrency) সেই বিষয়ে বলবো।

আপনি যদি ক্রিপ্টোকারেন্সী মাধ্যমে ইনকাম করতে চান তাহলে শেষে পর্যন্ত এই আর্টিকেলটি পড়তে থাকুন আমি আসা করছি আপনি এই আর্টিকেলটি পড়ার পরে ক্রিপ্টোকারেন্সী মাধ্যমে অবশ্যই ইনকাম করতে পারবেন।

ক্রিপ্টোকারেন্সী কী (What is cryptocurrency):

ক্রিপ্টোকারেন্সী হলো এমন একটি digital currency যাকে আপনি কখনো ফিসিক্যালি স্পর্শ করতে পারবেন না কিন্তু আপনি এই ডিজিটাল ক্রিপ্টোকারেন্সীকে নিজের দেশের ফিজিক্যাল কারেন্সীর সঙ্গে exchange করতে পারেন। বর্তমান ক্রিপ্টো মার্কেটে অনেক রকমের কারেন্সী বের হয়েছে। এবং ক্রিপ্টোকারেন্সী ভ্যালু সব সময় কমতে-বাড়তে থাকে তাই এই কারেন্সীর ভ্যালু কখনো স্থির থাকে না। বর্তমানে এম কিছু ক্রিপ্টোকারেন্সী রয়েছে যাদের ভ্যালু জানলে মাথায় হাত দেবেন 1 Bitcoin price – 36,48,052 এবং 1 Ethereum price- 2,62,182 (আজ দাম 31/03/2022)

প্রতিদিন, প্রতিমিনিটে এই ক্রিপ্টোকারেন্সী price Up-down হতে থাকে এবং price কম-বেশি হওয়ার উপর কেন্দ্র করে বহু লোক মাসে হাজার-হাজার টাকা উপার্জন করছে।

কীভাবে ক্রিপ্টোকারেন্সী থেকে প্রতি সপ্তাহে ইনকাম করবেন ( How to make a weekly income from cryptocurrency):

আমরা আগেই জেনেছি যে প্রতি মিনিটে মিনিটে ক্রিপ্টোকারেন্সী দাম (price) Up-down হতে থাকে, এই সুযোগ কে কাজে লাগিয়ে আমাদের মতো বহু লোক ক্রিপ্টোকারেন্সীর উপর ট্রেডিং করে মাসে হাজার হাজার টাকা ইনকাম করছে। চাইলে আপনিও পারেন ক্রিপ্টোকারেন্সী থেকে ইনকাম করতে।

চলুন এবার শিখে নেওয়া যাক কিভাবে ক্রিপ্টোকারেন্সী থেকে ইনকাম করবেন-

ক্রিপ্টোকারেন্সী থেকে ইনকাম করা প্রধান উৎস হলো- ক্রিপ্টোকারেন্সী দাম (cryptocurrency price) . এই ক্রিপ্টোকারেন্সী price সব সময় up-down হতে থেকে এবং এই সুযোগকে সঠিক ভাবে ব্যবহার করে আমরা এখানে থেকে ইনকাম করবো। যখন কোনো ক্রিপ্টোকারেন্সী মার্কেট প্রাইস কমে যাবে তখন এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে ওই ক্রিপ্টোকারেন্সী উপর আপনার সামর্থ মতো টাকা ইনভেস্ট করবেন এবং যখন ওই ক্রিপ্টোকারেন্সী মার্কেট প্রাইস বৃদ্ধি পাবে তখন ওই ক্রিপ্টোকারেন্সী টিকে বিক্রি (sell) করে দিবেন। তাহলে আপনার ইনভেস্টের তুলনায় বেশি টাকা retun পাবেন।

কখনো কখনো এমন হয় যে আপনি যে দামে কোনো ক্রিপ্টোকারেন্সী কিনলেন এবং কিছু সময় পরে ওই ক্রিপ্টোকারেন্সী দাম কমে (market down) গেল এবং অপার মাথায় বজ্রপাত ঘটলো তাহলে কি করবেন! কিছু করতে হবে না, নিজেকে সব সময় মোটিভেট করবেন যে এক দিন না একদিন তো price বাড়বে তখন বিক্রি করে দেব। কখনো যদি আপনার ইনভেস্ট করার টাকা 15% loss হয় যায় একটি কাজ করবেন সেটাহলো 15% loss আবার ইনভেস্ট করবেন তাহলে যখন ক্রিপ্টোকারেন্সী প্রাইস 8% grow করে তাহলে আপনার loss অনেকটা পূরণ হবে। আমি সাধারণত এই কনসেপ্টটিকে use করে ক্রিপ্টোকারেন্সী থেকে ইনকাম করছি।

আমার ক্রিপ্টো Transaction

এই ক্রিপ্টোকারেন্সী মার্কেট থেকে ইনকাম করতে হলে আপনাকে সব সময় ক্রিপ্টোপ্রাইস check out করতে হবে। অথবা আপনি একটি নিদিষ্ট Up-Down প্রাইসে Alerts সেট করে দিবে তাহলে প্রাইস কমলে বা বাড়লে আপনার কাছে নোটিফিকেশন পৌঁছে যাবে এবং আপনি ক্রিপ্টোকারেন্সী কিনে নেবেন বা বিক্রি করে দিবেন।

ক্রিপ্টোকারেন্সী থেকে ইনকাম করার সময় অত্যধিক লোভ করবেন না সব সময় মাথায় রাখবেন যে আমি আমার ইনভেস্টের উপর থেকে মাত্র 6-10% profit ইনকাম করে চাই। আর যখনি আপনার 6-8% profit হয়ে যাবে তখনি আপনার ইনভেস্ট করা ক্রিপ্টোটি sell করে দিবেন। যদি অত্যধিক profit করার কথা ভাবেন তাহলে আপনি খুব বেশি টাকা ক্রিপ্টো মার্কেট থেকে ইনকাম করতে পারবেন না।

কেউ যদি মনে করে আমি যখন 30% retun পাবো তখন আমার ক্রিপ্টোকারেন্সী সেল করে দেবো সে ক্ষেত্রে আমার একটি যুক্তি আছে যে- ধরে নিলাম যে আমি একটি Coin কিনেছি এবং ওই 30% retun পেতে হলে আমাকে কম হলেও প্রায় 6 মাস wait করতে হবে তবেই 30% retun পেতেও পারেন আবার নাও পেতে পারেন। কিন্তু আপনি যদি 6-10% লাভে sell করে দেন তাহলে আপনি মাসে কম হলেও 2 টি ট্রেডিং সুন্দর ভাবে করতে পারবেন এবং ৬মাস হতে হতে আপনি 12 টি ট্রেড কমপ্লিট করে ফেলবেন সে পর্যন্ত আপনি 8%×12=96% retun পেয়ে যাবেন।

আপনি যদি আমার এই কনসেপ্ট অনুযায়ী ইনভেস্ট করে তাহলে অবশই ক্রিপ্টো কারেন্সী থেকে ইনকাম করতে পারবেন।

কীভাবে ক্রিপ্টোকারেন্সী উপর ট্রেডিং শুরু করবেন (How to start trading on cryptocurrency):

বর্তমানে অনলাইন মার্কেটে অনেক রকমের ক্রিপ্টো ট্রেডিং প্লার্টফর্ম রয়েছে কিন্তু আমি যে প্লার্টফর্মের উপর ট্রেডিং করি সেটার হলো – CoinSwich Cuber . CoinSwich Cuber একটি সহজ সরল এবং high secure ক্রিপ্টো ট্রেডিং প্লার্টফর্ম। এখানে আপনি কয়েক মিনিটের মধ্যে account বানাতে পারবেন। আপনার account কে Secure করার জন্য KYC করবেন তাহলে আপনার account success full ভাবে active হয়ে যাবে। CoinSwich এর মাধ্যমে আপনি minimum 100 টাকা দিয়ে investment বা ট্রেডিং শুরু করতে পারেন। এখনে 0% fees এ UPI বা IMPS, NEFT, RTGS এর মাধ্যমে টাকা Deposit করে ইনভেস্ট করতে পারেন এবং যে টাকা আপনি CoinSwich account এ থাকবে ওই টাকা ডাইরেক্ট ব্যাঙ্ক ট্রান্সফার করতে পারবেন কোনো রকম চার্জ ছাড়াই। তাই আর দেরি না করে CoinSwich এর মাধ্যমে ক্রিপ্টোকারেন্সী উপর ইনভেস্ট শুরু করে দিন। নীচে CoinSwich app install করার link দেওয়া রইলো।

CoinSwich App install link: https://coinswitch.co/in/refer?tag=nQaY

আমার শেষ কথা:

আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আমার শিখলাম যে কিভাবে প্রতি সপ্তাহে ক্রিপ্টো কারেন্সীতে ইনভেস্ট করে ইনকাম করতে হয়। তাই আর দেরি না করে ইনকাম করা শুরু করে দিন, প্রথম প্রথম খুব অল্প অল্প করে ইনভেস্ট করুন তার পরে যখন ভালো ভাবে ক্রিপ্টো উপর নলেজ হয়ে যাবে তখন আপনার সামর্থ অনুযায়ী ইনভেস্ট করবেন। আমার তরফ থেকে আপনার জন্য অভিনন্দন রইলো। এই আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত পড়ার জন্য ধন্যবাদ।

Leave a Comment