আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স (Artificial Intelligence) কী এবং কিভাবে এর ব্যবহার হচ্ছে?

বিশ্ব ব্রম্ভান্ডের মধ্যে মানুষ হলো সব চেয়ে উন্নত জীব। ঈশ্বর এই মানব জাতিকে অন্যান জীবেদের থেকে বুদ্ধিমান বানিয়েছেন। তাই আমরা মানব জাতিরা সারা বিশ্বের মধ্যে রাজত্ব চালাচ্ছি, নতুন নতুন জিনিস আবিষ্কার করছি। বর্তমান যুগে মানব জাতির সেরা কম্পিউটার টেকনোলজি এবং ইন্টারনেট। এর সাহায্যে আমরা এক জায়গায় বসে সারা বিশ্বের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি। এবং আমরা আমাদের সমস্ত কাজ অল্প সময়ে দ্রুত করা জন্য মেশিনকে ব্যবহার করি। আমরা আমাদের সুবিধার জন্য মানুষের মতো চিন্তা-ভাবনা মেশিন বা সিস্টেম বানিয়ে ফেলেছি। যার ফলে আমার আমাদের চিন্তা-ভাবনাকে মেশিনের সাহায্যে যুক্ত করে মেশিন দ্বারা সেই কাজ করতে পারি। এই সিস্টেমকে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স (Artificial Intelligence) বা কৃতিম বুদ্ধিমত্তা বলে।

উদাহরণের সহজে বোঝাচ্ছি –

Tesla car: আমরা জানি গাড়ি চালানোর জন্য একটি ড্রাইভার লাগে এবং সেই ড্রাইভার গাড়িটিকে কন্ট্রোল করে, কিন্তু আপনি কখনো ভেবেছেন ড্রাইভার ছাড়া চলানোর কথা! মোটেই না, এটা কোনো অবাস্তব কথা নয় এটা সম্ভব আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স দ্বারা। এই আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্সকে কাজে লাগিয়ে প্রোগ্রামিং দ্বারা এমন car বানানো হচ্ছে যা মানুষের মতো অটোমেটিক কাজ করে।

আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স:

মানুষের বুদ্ধিমত্তা ও চিন্তা শক্তিকে কৃত্রিম উপায়ে প্রযুক্তিনির্ভর যন্ত্র মাধ্যমে বাস্তবায়ন করাটাই হলো কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বা আর্টিফিসিয়াল ইনটেলিজেন্স (Artificial Intelligence), অর্থাৎ মেশিনকে মানুষের মতো বুদ্ধিমত্তা দেওয়ার বিজ্ঞানকে আর্টিফিসিয়াল ইনটেলিজেন্স (AI) বলে।

আমরা যেমন জন্মের পরে থেকে ধীরে ধীরে সবকিছু শিখি তেমনি মেশিনকে প্রোগ্রামিং এর সাহায্যে মানুষের মতো সেখান হয়, এই গঠনটা হচ্ছে কৃতিম বুদ্ধিমত্তা।

আর্টিফিসিয়াল ইনটেলিজেন্স এর ধারণা জন্মায় উনিশের দশকে। ধীরে ধীরে এই প্রযুক্তির উপর কাজ শুরু হয়। ২০১০ সালের পরে এই চাহিদা বাজারে ভীষণ ভাবে বেড়ে যায়। এবং বহু কোম্পনি এই আর্টিফিসিয়াল ইনটেলিজেন্স (AI) প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে অনেক মেশিন, সফটওয়্যার বানাচ্ছে।

আর্টিফিসিয়াল ইনটেলিজেন্স এর ব্যবহার:

বর্তমান সময়ে এই আর্টিফিসিয়াল ইনটেলিজেন্স কে কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন রকমের আধুনিক যন্ত্র পাতি ও সফটওয়্যার আবিষ্কৃত হয়েছে – নীচেতা বর্ণনা করা হলো

  • Robort: রোবর্ট মানুষ দ্বারা তৈরী করা একটি ইলেট্রনিক সিস্টেম। যার সাহায্যে আমরা আমাদের বিভিন্ন রকমের কাজ করে নিতে পারি। আপনি যদি Hindi “Robort” সিনেমাটি দেখে থাকেন তাহলে রোবর্ট সমন্ধে একটি স্পষ্ট ধারণা পাবেন। এই রোবর্ট সিস্টেমের মূল ভিত হলো আর্টিফিসিয়াল ইনটেলিজেন্স।
  • Drone: ড্রোন সমন্ধে আমরা সকলে জানি। এই ড্রোনের মধ্যে প্রচুর AI প্রয়োগ করা হয়ে থাকে, ফলে ড্রোন মানুষের বুদ্ধিমত্তার মতো কাজ করে।
  • Apple Siri, Google assistant ও Amazon Alixa: আমরা সকলে iphone কিছু না কিছু জানি, এবং যারা iphone বা ipad use করে তারা Siri সম্পর্কে জানে। Siri হচ্ছে apple কোম্পানি দ্বারা বানানো একটি সফটওয়্যার । এই Siri এর সঙ্গে আপনি কথার মাধ্যমে অনেক রকমের কাজ করতে পারেন, এই siri কাছে থেকে যে কোনো রকমের প্রশ্ন করে তার উত্তর পেতে পারেন। এই siri আর্টিফিসিয়াল ইনটেলিজেন্স এর সাহায্যে বানানো।

এছাড়াও Google assistant, Amazon Alexa এই সমস্ত কিছু AI এর সাহায্যে প্রোগ্রামিং করা।

  • Youtube এবং Facebook: আমরা সকলে YouTube, Facebook চালায়। আপনির কি কখনো লক্ষ করেছেন, যখন আপনি Youtube বা ফেসবুকে funy video দেখেন, এবং ওই ভিডিওর নীচে অটোমেটিক funy ভিডিও show করে। আপনি কি জানেন কিভাবে এগুলো হয়! এই সমস্ত কিছু পিছনে রয়েছে AI হাত। AI আপনার ইন্টারেস্ট এর সঙ্গে একটি সম্পর্ক গড়ে তুলতে তারপরে আপনাকে ওই বিষয়ের এর সঙ্গে যুক্ত ভিডিও সাজেস্ট করে আপনাকে এবং আপনার ইন্টারেস্ট অনুযায়ী Ads show করে।

আর্টিফিসিয়াল ইনটেলিজেন্স এর খারাপ দিক: সব কিছুর সুবিধার পাশাপাশি অসুবিধাও রয়েছে। উপরে আমরা AI এর অনেক সুবিধা আলোচনা করলাম আবার AI এর কিছু খারাপ দিক গুলো আলোচনা করি-

  1. আর্টিফিসিয়াল ইনটেলিজেন্স (AI) হলো একটি মেশিন প্রযুক্তি। ভবিষ্যতে এই প্রযুক্তির উপর মানুষ যদি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে তাহলে এই প্রযুক্তি মানব জাতিকে ধ্বংস করতে পারে।
  2. সমস্ত কাজ যদি এই AI সিস্টেম দ্বারা মেশিন করে তাহলে কাজ কর্মের অভাব দেখা দেবে ফলে বেকারত্ব বৃদ্ধি পাবে।
  3. সমস্ত কাজ যদি মেশিন করতে থাকে তাহলে মানুষ অলস হয়ে যাবে।

আমাদের শেষ কথা: আসা করছি আপনি আর্টিফিসিয়াল ইনটেলিজেন্স সমন্ধে একটি স্পষ্ট ধারণা পেয়েছেন। এই AI সম্পর্কে কোনো রকম সমস্যা থাকলে কমেন্ট করে জানাবেন। যদি এই আর্টিকেলটি ভালো লাগে তাহলে আপনার বন্ধু-বান্ধবের সঙ্গে Share করবেন। পরবর্তী কালে আপনি কোন কোন বিষয়ে article পেতে চান কমেন্ট করে জানা।

Leave a Comment