What is Freelancing। freelancing কি এবং freelancing কিভাবে করতে হয়

আমাদের ইন্ডিয়াতে বেরোজগারের সংখ্যা সবথেকে বেশি, প্রায় 50-60% বেরোজগার ব্যাক্তি রয়েছে। এই বেরোজগারের মূল কারণ আমাদের ভারতে চাকরির সংখ্যা কম এবং জনসংখ্যা বেশি। প্রতি বছর হাজার হাজার যুবক-যুবতী ডিগ্রি লাভ করে চাকরির অভাবে বেকার বসে রয়েছে, ওদের যোগ্যতা অনুযায়ী চাকরি না পাওয়া জন্য। লিখা-পড়া করে ছোট-খাটো কাজ করতে অস্বীকার করে, কারণ বেতন কম বলে। এই সব কারণে আমাদের দেশে বেরোজগারের সংখ্যা সবথেকে বেশি। বর্তমানে Internet আসার পরে থেকে অনলাইন ইনকামের অনেক রাস্তা খুঁজে পাওয়া গিয়েছে। ইন্টারনেট চালানোর সময় অনেক রকম বিজ্ঞাপন দেখা যায় “ঘরে বসে Online থেকে ইনকাম করুন” এবং আপনার মাথায় প্রশ্ন জেগেছে কি ভাবে ঘরে বসে অনলাইন থেকে ইনকাম করা যায়। বিভিন্ন রকম ভাবে অনলাইন থেকে ইনকাম করা যায় যেমনঃ Bloging, Youtube, Online marketing, Webdesing ইত্যাদি। এই গুলো থেকে অনলাইন টাকা ইনকাম এর জন্য অনেক সময় এবং মেহনত লাগে। কিন্তু অনলাইন ইনকামের একটা আলাদা রাস্তা রয়েছে যেখানে আপনি কম সময়ে অনেক টাকা ইনকাম করতে পারেন, সেটা হলো Freelancing (ফ্রিল্যান্সিং) . এই ফ্রিল্যান্সিং এর কথা আপনি হয়তো অনেক জায়গায় শুনেছেন, এই ফ্রিল্যান্সিং এর সাহায্যে অনেকে হাজার-হাজার টাকা income করছে। চলুন এবার ফ্রিল্যান্সিং সমন্ধে বিস্তারিত আলোচনা করা যাক —

শুরু করার আগে কি কি বিষয়ে আলোচনা হবে তা সমন্ধে একটু ধারণা রাখুন:

  1. ফ্রিল্যান্সিং কি ?
  2. ফ্রিল্যান্সিং কোথায় হয় ?
  3. আপনি কিভাবে ফ্রিল্যান্সিং শুরু করবেন ?
  4. ফ্রিল্যান্সিং শুরু করার জন্য কি কি প্রয়োজন ?

আরো পড়ুন: কিভাবে অনলাইন থাকে টাকা ইনকাম করা যায়

ফ্রিল্যান্সিং কি ( What is Freelancing):

কোনো ব্যাক্তির কাছে, যদি যেকোনো অভিজ্ঞতা বা দক্ষতা (Skills) থাকে এবং সেই Skills এর সাহায্যে অন্যবক্তির কাজ করে তার বিনিময়ে টাকা নেয়াকে ফ্রিল্যান্সিং বলে। অর্থাৎ আপনি Video editing, Photo editing, Content writing, Voice over, Digital marketing, Graphics Desingn, Data entry ইত্যাদি কাজ কোনো কোম্পানি বা ব্যাক্তিকে করে দেওয়ার বিনিময়ে টাকা নেয়ার কে ফ্রিল্যান্সিং বলে। যে ব্যাক্তি নিজের Skills দিয়ে কাজ করে দেয় তাকে Freelancer বলে। ফ্রিল্যান্সিং করার জন আপনাকে নিদির্ষ্ট কোনো কোম্পানির হয়ে কাজ করতে হয় না ,এর জন্য আপনাকে বিভিন্ন ক্লায়েন্ট এর খোঁজ করে তার কাজ করতে হবে। এক কোম্পানির কাজ সম্পর্ণ করার পরে আর এক কোম্পানির কাজ করতে হয়। এই রকম ভাবে চক্রাকারে চলতে থাকে।

ফ্রিল্যান্সিং কোথায় হয় (Where dose Freelancing Work):

এখন প্রশ্ন হলো Freelancer আরে Claint এর সঙ্গে কিভাবে যোগাযোগ হবে ? ফ্রিল্যান্সিং করার জন্য আপনাকে মিডিয়ামের বা মাধমের প্রয়োজন হবে। বিভিন্ন রকমের Freelancer website রয়েছে এবং এই মিডিয়ামের Freelancer আরে Claint দুজনের একাউন্ট থাকবে এখানে তাদের Deals (চুক্তি) হয়। বর্তমান সময়ে অনেক গুলো ফ্রিল্যান্সিং ওয়েবসাইট রয়েছে যেখানে আপনি freelancing করতে পারেন-

  1. Fiverr
  2. Wpwork
  3. Freelancer
  4. Toptal
  5. Peoplehour
  6. Guru

এই সকল ওয়েবসাইট গুলির সাহায্যে আপনি আপনার Freelancer পরিচয় গড়ে তুলতে পারেন। এই ফ্রিল্যান্সিং একটা business এর মতো। এই business এ আপনি যদি সফল হন তাহলে আপনি ঘণ্টায় 50 ডলার পর্যন্ত ইনকাম করতে পারেন। ফ্রিল্যান্সিংএ কাজ করার জন্য সময়ের কোনো বা বাঁধা নেই, আপনি যখন খুশি তখন কাজ করতে পারেন। ফ্রিল্যান্সিং ওয়েবসাইট গুলো Freelancer আরে Claint এর মধ্যে ব্রিজের মতো কাজ করে। যখন কোনো কোম্পানির কোনো কাজ করানোর প্রয়োজন হয় তখন তারা সেই কাজ করানোর জন্য Fiverr, Wpwork কোম্পানিতে পোস্ট করে। ফ্রীলান্সাররা তাদের যোগ্যতা অনুযায়ী সেই কাজ করার জন্য apply করে। ফ্রীলান্সারকে দেখে যদি ক্লাইন্টের পছন্দ হয় তাহলে ক্লাইন্ট তাকে হায়ার করে নেয়। নিদির্ষ্ট সময়ে ক্লাইন্টকে কাজ করে দেয়ার পরে ক্লাইন্ট সেই ফ্রীলান্সারকে তার মূল প্রদান করে। যে কোম্পানি দ্বারা এই ফ্রিল্যান্সিং হচ্ছে সেই কোম্পানি তাদের দুজনের কাছে থাকে commission earn করে।

কীভাবে ফ্রিল্যান্সিং শুরু করবেন (Who to Start Freelancing Job):

ফ্রিল্যান্সিং হচ্ছে Skills ভিত্তিক কাজ (Job), যার সাহায্যে আপনি অর্থ উপার্জন করতে পারেন। তাই আপনি একজন ফ্রিল্যান্সিং শুরু করার আগে আপনার নিজের Talant বা Skills টাকে ভালো করে জানু , এমন কি কাজ যা আপনি পছন্দ করেন বা ভালো ভালো ভাবে করতে পারেন। আপনার ট্যালেন্ট সমন্ধে জানার পরে সেই তা সমন্ধে ভালো করে Skills অর্জন করুন তার পরে ফ্রিল্যান্সিং শুরু করুন।

ফ্রিল্যান্সিং শুরু করার জন্য কি কি প্রয়োজন (What are the requirements to start freelancing):

ফ্রিল্যান্সিং মূলত অনলাইন ভিত্তিক কাজ, তাই ফ্রিল্যান্সিং এ কাজ করার জন্য আপনাকে কিছু অত্যন্ত প্রয়োজনীয় জিনিস লাগবে —

  1. Computar বা Laptop
  2. Internet Conection
  3. Gamil account
  4. Smartphone
  5. Bank account

এবার আপনি যেকোনো ফ্রিল্যান্সিং ওয়েবসাইটে গিয়ে একাউন্ট খুলে নেয়ার পরে বলো করে আপনার Profile বানাবেন যাতে যেকোনো ক্লাইন্ট আপনার profile দেখার পরে আকৃষ্ট হয়। Profile বানানোর সময় আপনি যেকাজে এক্সপার্ট সেই কাজ সমন্ধে ভালো ভাবে লেখবেন।

ক্লাইন্ট যখন আপনাকে কাজ দেব সেই কাজটি ইমান্দারি ভাবে করবেন, যাতে ক্লাইন্ট আপনাকে ভালো Reting দেয়। আপনার যত ভালো Reting থাকবে আপনি ততো বেশি কাজ পাবেন এবং আপনার ইনকাম আরো বেশি হবে।

আসা করছি ফ্রিল্যান্সিং সমন্ধে সমস্ত কিছু বুঝে গিয়েছেন।

আরো পড়ুন: Who many Process of Online Earning- Full Information in Bangla

6 thoughts on “What is Freelancing। freelancing কি এবং freelancing কিভাবে করতে হয়”

  1. Check out this guide about 1how to get free diamonds on cooking fever

    gddd23jas
    Cooking Fever is more fun when you have unlimited gems.If you love mobile games like this you ought to check out this guide

    Reply
  2. Check out this guide about 1how to get diamonds on cooking fever

    gddd23jas
    This game is more fun when you have unlimited diamonds.If you like mobile games like this you need to check out this guide

    Reply
  3. Do you want to see some tight petite women?They try some spooning sex next for a nice deep interlude, but soon enough Monica finds herself on her knees, bouncing away on Lex’s fuck stick. <a href=https://allcapecod.org/>Nude Adult Pics</a> Look at the style Lana Harding fills out her dress! This staggering Britbabe is hot as fuck, but she wants you to do way more than just look.

    Reply

Leave a Comment